সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম সেমিফাইনাল ম্যাচে ভুটানের মেয়েদের নাস্তানাবুদ করে ছাড়ল বাংলাদেশের মেয়েরা। দলনেতা সাবিনা খাতুনের হ্যাটট্রিকে ভুটানের জালে ৮ গোল দিয়েছে লাল-সবুজের প্রতিনিধিত্বকারী। ফলে ৮-০ গোলের বড় ব্যবধানের জয় নিয়ে প্রথম দল হিসেবে ফাইনালে টিকিট নিশ্চিত করলেন গোলাম রব্বানি ছোটনের শিষ্যরা।

 

দ্বিতীয় সেমিফাইনালে কিছুক্ষণে পরে পরস্পরের বিপক্ষে মাঠে নামবে স্বাগতিক নেপাল ও ভারত। এই দুদলের মধ্যকার জয়ী দলের বিপক্ষে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে মাঠে নামবে বাংলাদেশ নারী দল।

 

 

কাঠমুন্ডুর দশরথ রঙ্গশালায় অনুষ্ঠিত প্রথম সেমিফাইনালে ম্যাচে খেলতে নেমে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলতে থাকে বাংলাদেশ। সেই সুবাদে ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটে এগিয়ে যায় দলটি। প্রথম গোলটি করেন সিরাত জাহান স্বপ্না। ২৭তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন সাবিনা খাতুন।

 

এর ঠিক তিন মিনিপ পর কৃষ্ণা রানী সরকারের গোলে ব্যবধান ৩-০ করে বাংলাদেশ। আর রিতুপর্ণা চাকমা করা গোলে ৪-০ গোলে এগে থেকে বিরতিতে যায় ছোটনের শিষ্যরা।

 

দ্বিতীয়ার্ধেও ভুটানের মেয়েদের পাত্তা দেয়নি বাংলাদেশ। ম্যাচের ৫৪তম মিনিটে অধিনায়ক সাবিনা খাতুন নিজের দ্বিতীয় গোল করেন। সংঘবদ্ধ আক্রমণে বক্সের মধ্যে ফাঁকা জায়গায় বল নিয়ে ঠাণ্ডা মাথায় প্লেসিং করেন এই ফরোয়ার্ড। তিন মিনিট পর বক্সের বাইরে থেকে নেয়া সাবিনার ফ্রি কিক গোলরক্ষকের হাত থেকে ফস্কে গেলে সামনে দাঁড়িয়ে থাকা মাসুরা পারভীন টোকা দিয়ে বল জালে পাঠান।

 

শেষ সময়ে তহুরা খাতুন ব্যবধানটা ৭-০ করেন। এরপর একেবারে শেষ মুহূর্তে গোল করে নিজের হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন সাবিনা। তাতে বাংলাদেশ ৮-০ গোলের বিশাল জয় নিয়েই ফাইনাল নিশ্চিত করে ফেলে।

 

গ্রুপপর্বেও দাপুটে ফুটবল খেলেছে বাংলাদেশের মেয়েরা। তিন ম্যাচের তিনটিতেই জিতেছে তারা। প্রথম ম্যাচে মালদ্বীপকে ৩-০ গোলে হারানোর পর পাকিস্তানকে ৬-০ গোল ব্যবধানে হারান সাবিনা খাতুন বাহিনী। শেষ ম্যাচে ভারতকে ৩-০ গোলে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে সেরা চারে উঠে বাঘিনীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Don`t copy text!
%d bloggers like this: