সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
ছাতকে লাফার্জ হোলসিম সিমেন্ট কারখানা কর্তৃক ক্রাশিং চুনাপাথর উৎপাদন ও খোলাবাজারে বিক্রির প্রতিবাদে অর্ধদিবস হরতাল ও সকাল-সন্ধ্যা নৌ-পথ অবরোধ কর্মসূচী পালন করা হয়েছে। বুধবার সকাল থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত হরতাল চলাকালে কাঁচামালের দোকান ও ফার্মেসি ছাড়া সব ধরনের দোকানপাট ও বিপনী বিতান বন্ধ ছিল। কোন ধরনের যানবাহন চলাচল করতে দেখা যায়নি। সকাল থেকেই বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ পয়েন্টে-পয়েন্টে পিকেডিং করতে দেখা গেছে। সকাল ১০টার দিকে শহরের শহীদ মিনার চত্ত্বরে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ। শহরে বিভিন্ন পয়েন্টে ব্যবসায়ীরা লাফার্জ হোলসিম বিরোধী খন্ড-খন্ড মিছিল করতেও দেখা গেছে। এদিকে নদী পথে অবরোধ চলাকালীন সময়ে সুরমা নদীতে কোন ধরনের নৌ-যান চলাচল করতে দেখা যায়নি। লাফার্জ ঘাটে পণ্য লোডিং-আন লোডিং বন্ধ ছিল। নৌ-পথ অবরোধের কারনে এখানের ব্যস্ততম সুরমা, পিয়ান ও চেলা নদীতে বিরাজ করছিল পিনপতন নিঃরবতা। ছাতক ব্যবসায়ী-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের ডাকে এ অর্ধদিবস হরতাল ও সকাল-সন্ধ্যা নৌ-পথ অবরোধ কর্মসূচী পালন করা হয়। হরতাল শেষে অনুষ্ঠিত পথ সভায় ছাতক লাইমষ্টোন ইম্পোটার্স এন্ড সাপ্লায়াস গ্রুপের
প্রেসিডেন্ট ও ছাতক ব্যবসায়ী-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের আহবায়ক আহমদ শাখাওয়াত সেলিম চৌধুরী বলেন, অবৈধভাবে ক্রাশিং চুনাপাথর উৎপাদন ও খোলাবাজারে বিক্রি বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত লাফার্জ হোলসিমের বিরুদ্ধে আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। আগামী ২৯ অক্টোবরের মধ্যে লাফার্জ হোলসিম তার অবৈধ কার্যক্রম ক্রাশিং চুনাপাথর উৎপাদন এবং খোলাবাজারে বিক্রি স্থায়ীভাবে বন্ধ না করলে আগামী ৩০ অক্টোবর থেকে অনির্দিষ্ট কালের
জন্য নৌ-পথ অবরোধের ঘোষনা করেন তিনি। এ অঞ্চলের ব্যবসায়ী-শ্রমিকের অধিকার রক্ষায় লাফার্জ বিরোধি এ আন্দোলন সফল করার জন্য সর্বস্তরের ব্যবসায়ী, শ্রমিক ও জনতার
প্রতি আহবান জানান তিনি। ব্যবসায়ী-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সদস্য সচিব হাজী আবুল হাসানের পরিচালনায অনুষ্ঠিত পথসভায় বক্তব্য রাখেন, সাবেক পৌর মেয়র আব্দুল ওয়াহিদ মজনু, ব্যবসায়ী সৈয়দ আহমদ, ছাতক পাথর ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি ফজলু মিয়া চৌধুরী, লাইমষ্টোন ইম্পোটার্স এন্ড সাপ্লায়ার্স গ্রুপের জেনারেল সেক্রেটারী অরুন দাস, ছাতক পাথর ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির সেক্রেটারী সামছু মিয়া, ব্যবসায়ী হাজী আব্দুল হাই আজাদ,মাওলানা আকিক হুসাইন, আলী আমজদ, হাজী সুজন মিয়া, মিলন সিংহ, বাবুল মিয়া, প্রভাষক ফখর উদ্দিন স্বপন, ইউপি সদস্য শফিক আলী, কামরুজ্জামান কামরুল প্রমূখ।##

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Don`t copy text!
%d bloggers like this: