আমির হোসেন, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি::
দূর্গাদেবীর গজে আগমন ও নৌকায় গমন এই প্রতিপাদ্য নিয়ে সারাদেশের হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শ্রী শ্রী শারদীয় দূর্গোৎসবের মহা অষ্টমী তিথিতে সুনামগঞ্জে ভক্তবৃন্দরা উপবাস থেকে পূন্য লাভের আশায় এবং দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনায় মন্দিরে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ,অজ্ঞলী প্রদান ও মহাপ্রসাদ বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সোমবার সকাল ১০টায় সুনামগঞ্জ শহরের হাছন নগরস্থ শ্রী শ্রী দূর্গাবাড়ি মন্দির প্রাঙ্গণে পূজামন্ডপে ভক্তরা লাইনে দাঁড়িয়ে মায়ের চরণে পুষ্পাজ্ঞলী অর্পণ করেন।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা কৃষকলীগের সাবেক সভাপতি সুবীর তালুকদার বাপ্টু,সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক ও তাহিরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান করুণা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল, সাংগঠনিক সম্পাদক শংকর চন্দ্র দাস,জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি এড. বিমান কান্তি রায়,সাধারন সম্পাদক বিমণ বণিক,জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য অমল চৌধুরী,জেলা যুবলীগের সিনিয়র সদস্য সবুজ কান্তি দাস,সুবিমল চক্রবর্তী চন্দন,সুনামগঞ্জ সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি ও মোহনা টেলিভিশনের জেলা প্রতিনিধি কুলেন্দু শেখর দাস,শ্রী শ্রী দূর্গাবাড়ি মন্দির পরিচালনা কমিটির সভাপতি বাপ্পা চৌধুরী,সাধারন সম্পাদক মিন্টু চৌধুরী প্রমুখ।
চলতি বছর সুনামগঞ্জ জেলা শহর সহ ১২টি উপজেলায় মোট ৪২৪টি পূজামন্ডপে দূর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। তবে আইন শৃংখলা পরিস্থিতি এখন পর্যন্ত স্বাভাবিক রয়েছে কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। প্রতিটি পূজা মন্ডপে স্ব স্ব পূজা কমিটির সদস্যদের পাশাপাশি আনসার,পুলিশ ও র‌্যাবের সদস্যরা দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন বলে পুলিশ সূত্রে জানা যায় এবং কোথাও কোথাও সিসি টিভি লাগানো ও হয়েছে।
এ ব্যাপারে উপস্থিত সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক ও তাহিরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ার,ম্যান করুণা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল বলেছেন,সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বাংলদেশে সুনামগঞ্জ একটি অনন্য উদাহরণ। এই জেলায় প্রতিটি ধর্মের মানুষের মাঝে একটি সম্প্রীতির সেতুবন্ধন দীর্ঘকালের। এই সম্প্রীতি সমুন্নত রাখতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ডগুলো কাজে লাগাতে সবাইকে একযুগে কাজ করে যাওয়ার দৃঢ প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। পরে সবার মাঝে মহাপ্রসাদ বিতরণ করা হয়। #

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Don`t copy text!
%d bloggers like this: