সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার এনায়েতপুর আদর্শ গ্রামের গৃহবধূ শেফালী (৩০) তার মাদকাসক্ত ছেলে শাকিলকে (১৯) মাদক সেবনের কবল থেকে ফিরিয়ে আনার জন্য কারাবাসে পাঠাতে আকুতি জানিয়েছেন। এ অসহায় গৃহবধূ ওই গ্রামের নূর ইসলামের (৩৭) স্ত্রী।

তিনি সোমবার বিকেলে আলোকিত বাংলাদেশকে বলেন, আমার স্বামী দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ অবস্থায় বিছানায় রয়েছে। আর্থিক সংকটের কারণে তার চিকিৎসাও করতে পারছিনা। আমি অন্যর বাসায় কাজ করে স্বামীসহ ৩ ছেলেকে নিয়ে সংসার চালায় কোনরকম ভাবে।

তিনি কান্নাজড়িত কন্ঠে আরো বলেন, আমার বড় ছেলে শাকিল প্রায় দেড় বছর আগে মাদকাসক্ত হয়ে পড়ে। স্থানীয় মাদকাসেবীরা আমার ছেলেকে জোড় করে মাদক নেশায় জড়িয়েছে। ইয়াবা, জুতার আঠা (ডেন্ডি) ও হেরোইন সেবনে শাকিল আসক্ত হয়ে পড়েছে। এসব মাদক নেশার টাকা না দিলে ছেলে সংসারে অশান্তি ও মারপিটের ঘটনা ঘটায়। গত বছর আগে এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর অভিযোগ করা হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাকে ১ মাসের কারাদন্ড দেওয়া হয়।

এ কারাভোগের পর ছেলে অনেকটা ভালো হলেও আবারো স্থানীয় মাদক সেবীরা তাকে জোড় করে নেশার জগতে নিয়ে যায়। এমনকি নেশার টাকা না দিলে মায়ের উপর নির্যাতন এবং সংসারের জিনিসপত্র ছিনিয়ে নেয় এবং বিক্রি করে সেই টাকা দিয়ে নেশা করে। এ নির্যাতন থেকে মুক্তির জন্য প্রায় ১মাস আগে উল্লাপাড়া মডেল থানার ওসি’র কাছে মাদকাসক্ত ছেলেকে কারাগারে দেয়ার জন্য আবেদন করা হয়। এ আবেদনে করেও এখন পর্যন্ত ব্যবস্থা পায়নি।

মাদকাসক্ত থেকে ছেলেকে বাচাঁতে আবারো কারাগারে পাঠানোর জন্য অবেদন করছি। ছেলে ২/৩ মাস কারাগারে থাকলে অনেকটাই ভালো হবে এবং পরে ছেলেকে নিয়ে ঢাকায় কাজ করতে যাবো। এজন্য ছেলেকে কারাগারে পাঠানোর জন্য প্রশাসনের কাছ জোর আবেদন করছি। আল্লাহ আমার ছেলে শাকিলকে যেন ভালো করে এই কামনাই করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই মাত্র পাওয়া খবর

Don`t copy text!
%d bloggers like this: