সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলায় ছাত্রলীগ ও ইউনিয়ন পরিষদ ফোরাম একই সময়ে মানববন্ধনের ঘোষণা দেওয়ায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে স্থানীয় প্রশাসন। উপজেলার চালা বাসস্ট্যান্ড ও আশপাশের এলাকায় আজ বৃহস্পতিবার সকাল থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত ১৪৪ ধারা বলবৎ থাকবে বলে জানানো হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আনিসুর রহমান গতকাল বুধবার রাতে এ ঘোষণা দেন। এরই মধ্যে প্রশাসনের পক্ষ থেকে এ তথ্য মাইকিং করে জানানো হয়েছে।

ইউএনও আনিসুর রহমান বলেন, ‘চালা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ছাত্রলীগের একটি গ্রুপ ইউনিয়ন ফোরামের ব্যানারে আজ বৃহস্পতিবার মানববন্ধন কর্মসূচি ঘোষণা করে। ওই সময় একই স্থানে পৌর ছাত্রলীগও মানববন্ধন কর্মসূচির ঘোষণা দেয়। পাল্টাপাল্টি কর্মসূচিতে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটার আশঙ্কায় চালা বাসস্ট্যান্ড ও আশপাশের এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট এলাকায় সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ থাকবে।

বেলকুচি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম মোস্তফা জানান, উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ১৪৪ ধারা জারির পর তা মাইকিং করে স্থানীয়দের জানানো হয়েছে।

গত রোববার বিকেলে পূর্ব-শত্রুতার জের ধরে বেলকুচি পৌর এলাকার মাজেমের ঢাল এলাকায় উপজেলার ভাঙ্গাবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান জহুরুল ইসলাম ভূঁইয়া ও প্যানেল চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের তালুকদারকে মারধরের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি আকতার হামিদসহ সাত জনকে আসামি করে থানায় মামলা করা হয়।

এ হামলার প্রতিবাদে বেলকুচি উপজেলা ইউনিয়ন পরিষদ ফোরাম আজ বৃহস্পতিবার মানববন্ধন কর্মসূচি ঘোষণা করে। পাল্টা কর্মসূচি ঘোষণা করে পৌর ছাত্রলীগও। এর পরিপ্রেক্ষিতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.