নিজস্ব প্রতিবেদক

আগামী ৯ ডিসেম্বর চট্টগ্রাম সাংবাদিক সংস্থা (চসাস) ২০২৩ সালের তিন বছর মেয়াদি কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচন। চট্টগ্রাম বিভাগের বিভিন্ন দৈনিক, টেলিভিশন, অনলাইন ও রেডিওতে কর্মরত প্রায় দুই শতাধিক সদস্য তথা পেশাদার সাংবাদিকদের এ সংগঠনের নেতা নির্বাচিত হওয়ার জন্য ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রার্থীরা।
সংগঠনটির কার্যনির্বাহী কমিটি গঠনের লক্ষ্যে ৪ ডিসেম্বর তিন সদস্যের নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়েছিল। কমিশনের সদস্যরা হলেন- প্রধান নির্বাচন কমিশনার সজল চৌধুরী, নির্বাচন কমিশনার প্রণবরাজ বড়ুয়া ও মোহাম্মদ খোরশেদ আলী মাইজভান্ডারী। গত ০৫ ডিসেম্বর প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র যাচাই বাছাই শেষ করে প্রতিটি প্রার্থীর সকল কাগজপত্র সঠিক ও বৈধ ঘোষনা করেছে নির্বাচন কমিশন। তাদের তথ্যমতে নির্বাচনে মোট ৪৮ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এতে ৬ টি পদের প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় তারা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ের সিমান্তে পৌছে গেছেন। তারা হলেন সভাপতি সৈয়দ দিদার আশরাফী (আপেল), যোগাযোগ সম্পাদক আনিছুর রহমান (মোবাইল), সমাজসেবা সম্পাদক ফিরোজ উদ্দিন (ঘোড়া), আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আরফাত আহমেদ আরমান (বাস), প্রশিক্ষণ সম্পাদক মোঃ রায়হান উদ্দিন ও জেলা সমন্বয়কারী সম্পাদক মাসুম বাবুল (জাহাজ)। আর বাঁকী ১৪ পদে একাধিক প্রতিদ্বন্দ্বি থাকলেও সবচেয়ে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইটি হবে সাধারণ সম্পাদকের পদ নিয়ে। সংগঠনটির বর্তমান সাধারণ সম্পাদক ও সংগঠনের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ওসমান এহতেসাম এর হাতি প্রতীককে আটকাতে তার বিরোধিতা করছেন আট জন। তারা হলেন, সংবাদ প্রতিদিনের ফিরোজ উদ্দিন (মই), সময়ের কাগজের জামশেদুল ইসলাম চৌধুরী (আম), দৈনিক স্বপ্নের বাংলা’র সম্পাদক সাফি ইরফাত জেবিন ইভা (পেঁপে), দৈনিক দেশ বাংলার সাইফুর রহমান নিশাদ (ফুটবল), দৈনিক স্বপ্নের বাংলা’র ইসরাত জাহান (পেন্সিল), দৈনিক অগ্রসর পত্রিকার ফারজানা কবির রুমী (চায়ের কাপ) ও রাফিকা আক্তার (টেলিভিশন)।
প্রতিদ্বন্দ্বী কয়েকজনের অনুভুতি ও সম্ভাবনা সম্পর্কে জানতে চাইলে তারা বলেন, আমাদের মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে কিন্তু প্রতিহিংসা থাকবে না। আমাদের মধ্যে কোন প্যানেল নেই। জয় পরাজয় থাকবে এটা নিয়ে আমাদের মধ্যে কোন বিভেদ সৃষ্টি হবে না। ভোট যুদ্ধে যেই বিজয়ী হোক আমরা সকলে তাকে সাদরে অভিনন্দন জানিয়ে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে এক হয়ে কাজ করবো।
এদিকে প্রচার প্রচারণার ক্ষেত্রে প্রতিটি প্রার্থীই সংস্থাকে সুসংগঠিত করে সকলের ভাগ্য উন্নয়নের এক বুক আশা দিচ্ছেন। সদস্যদের কল্যান তহবিল গঠন, বার্ষিক মিলন মেলা বা ভ্রমন, নিজস্ব ক্লাবঘরসহ বিভিন্ন সুবিধা বাস্তবায়ন করার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন তারা।
তবে নির্বাচনী এই গরম হাওয়া শুধু চট্টগ্রাম সাংবাদিক সংস্থার কার্যালয়েই নয়, এই হাওয়া ঝড়ের গতিতে ছুটে চলেছে চট্টগ্রামের মিডিয়া পাড়ায়। চট্টগ্রামের প্রবীন ও সিনিয়র সাংবাদিকের আলোচনার খোরাক এখন ৯ ডিসেম্বর তারিখের নির্বাচন। তারাও হিসেব করছেন কে কেমন ভোটের ব্যবধানে নিজেকে যোগ্য প্রমান করবেন। আগামী নির্বাচনে কে কেমন ভোট পেতে পারে সকল খোঁজ খবর নিচ্ছেন তারা।
গণতান্ত্রিক উপায়ে এমন নির্বাচন দেখে ইতমধ্যে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন রাজনীতিক মহল, সুশীল সমাজ ও প্রবীন সাংবাদিকরা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক প্রবীন সাংবাদিক বলেছেন, এই সংস্থার সাংবাদিকরা এত অল্প সময়ে এভাবে এগিয়ে যাবে এটা কেউ ভাবেনি। কারন চট্টগ্রামে এর আগেও অনেক সাংবাদিক সংগঠন হয়েছে, কিন্তু কয়েক মাস যেতে না যেতেই তাদের কার্যক্রম আর খুঁজে পাওয়া যায়নি। অনেকেই এমন ধারনা করেছিল চট্টগ্রাম সাংবাদিক সংস্থার ক্ষেত্রে। শুধু তাই নয়, শুনেছি এই সংস্থার হিসাব নিকাশও নাকি সচ্ছতার সাথে বুঝিয়ে দিয়েছে নির্বাচন কমিশনকে। খুব ভাল লেগেছে তাদের এমন সচ্ছতা দেখে। শুভকামনা রইলো চট্টগ্রাম সাংবাদিক সংস্থার সকল সদস্যদের জন্য।
নির্বাচনে সিনিয়র সহ-সভাপতি পদে লড়ছেন দুইজন। তারা হলেন মোহনা টেলিভিশন চট্টগ্রাম বিভাগীয় ব্যুরো প্রধান আলী আহমেদ শাহিন (ডাব) ও দৈনিক একুশে সংবাদ স্টাফ রিপোর্টার আব্দুল কাদের (গরু)সহ-সভাপতি পদে জার নিউজ এর সম্পাদক মোঃ জিন্নাত আলী (মোরগ) ও দৈনিক পূর্বকোণ ও যায়যায়দিন পত্রিকার প্রতিনিধি আজগর আলী খান (গোলাপ)। যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক পদে লড়ছেন তিনজন। তারা হলেন দৈনিক মানবকন্ঠের প্রতিনিধি মোঃ ওমরফারুক (বই), সাপ্তাহিক অভিযোগ সহ-সম্পাদক পলাশ কান্তি নাথ (বাঘ) ও দৈনিক অর্থনীতি ক্রাইম রিপোর্টার মোঃ মনসুর আলম। সাংগঠনিক সম্পাদক পদে লড়ছেন চট্টলা টিভি স্টাফ রিপোর্টার মোহাম্মদ রিদওয়ান হৃদয় (কলম) ও মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন (সিংহ)। সহ সাংগঠনিক পদে সাপ্তাহিক অভিযোগ এর পলাশ কান্তি নাথ ও মোহাম্মদ সেলিম রাজা (ঘড়ি)। প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক পদে দৈনিক সরকার চট্টগ্রাম জেলা প্রতিনিধি গাজী গোফরান (মাইক), আমাদের চট্টলার ঈসা মোহাম্মদ তকী তাজওয়ার (চেয়ার), দৈনিক গড়ব বাংলাদেশ এর নীলকমল সুশীল (টেবিল) ও এস এম শ্রাবণ মাহমুদ (জগ)। দপ্তর সম্পাদক পদে লড়ছেন দৈনিক প্রতিদিনের কাগজ স্টাফ রিপোর্টার আবুল হাসনাত মিনহাজ (আনারস) ও মিন্টু দাশ (গাজর)ক্রীড়া ও সাংস্কৃতি সম্পাদক পদে সাইফুর রহমান নিশাদ (পান পাতা) ও দৈনিক জনকালের সম্পাদক আনোয়ার হোসেন আবীর (মোমবাতি)। তথ্য সংরক্ষণ ও গবেষণা সম্পাদক পদে দৈনিক স্বপ্নের বাংলার সম্পাদক সাফি ইরফাত জেবিন ইভা (প্রজাপতি) ও দৈনিক ঢাকা টাইমসের বিপ্লব ইসলাম (সংবাদপত্র)। অনুষ্ঠান সম্পাদক পদে দৈনিক সময়ের কাগজ স্টাফ রিপোর্টার জামশেদুল ইসলাম চৌধুরী (আম) ও আমাদের চট্টলার ঈসা মোহাম্মদ তকী তাজওয়ার (তাল)। অর্থ সম্পাদক পদে দাঁড়িয়েছেন চারজন। তারা হলেন দৈনিক আশ্রয় প্রতিদিন স্টাফ রিপোর্টার মোহাম্মদ নেজাম উদ্দিন (ফ্যান), নিজাম উদ্দিন (তালা), আশ্রয় প্রতিদিনের মোঃ ওয়াজেদ (টিয়া পাখি) ও সুমন দাস (ব্যাট)। নির্বাহী সদস্য পদে দৈনিক আমাদের নতুন সময় এর সাংবাদিক সজল চৌধুরী, একুশে সংবাদের আব্দুল কাদের,দৈনিক সোনালী সময়ের সহকারী বার্তা সম্পাদক জিয়াউল ইসলাম জিয়া, প্রতিদিনের কাগজের মোঃ এবাদুল হক, মোঃ আতিকুর গোলডার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Don`t copy text!