বগুড়ার শিবগঞ্জের মহাস্থানে পূর্ব শক্রতার জেরে দাদন ও মাদক ব্যবসায়ীগণ কর্তৃক মহিলাদেরকে মারপিট, হাসপাতালে ভর্তি থানায় অভিযোগ

বগুড়ার শিবগঞ্জ থানার অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, রবিবার সকাল অনুমান ১০ টায় রায়নগর ইউনিয়নের মহাস্থান নামাপাড়া গ্রামে অনন্তবালা গ্রামের রুহুলের পুত্র জাকের আলীর স্ত্রীর তার মায়ের বাড়ী বেড়াতে এলে এক সময় কালের এলাকার চিহ্নিত গাঁজা ব্যবসায়ী সেকেন্দার আলীর পুত্র দাদন ব্যবসায়ী নামে পরিচিত গোলাম রব্বানী শিপন ও তার পরিবারের লোকজন পূর্ব শক্রতার জেরে জাকেরের শ্বাশুড়ী আছমা বেগমকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করলে তারা বাঁধা দেয়, এতে শিপন ক্ষিপ্ত হয়ে কাঠের বাটাম দিয়ে জাকেরের শ্বাশুরী আছমা বেগমকে এলোপাথারী ভাবে বেধড়ক মারপিট করতে থাকে, তাতে জাকেরের স্ত্রী আগাইয়া আসিলে সেকেন্দারের স্ত্রী গোলে, শিপনের স্ত্রী, ও শিপনের পুত্র সহ আরও অনেকে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে তাদেরকে হত্যার উদ্যেশ্যে লোহার রড, কাঠের বাটাম ও দেশীয় অস্ত্র দিয়ে জাকেরের স্ত্রী, শ্বাশুড়ী ও শ্বশুরকে মারপিট করে রক্তাক্ত জখম করে গুরুতর আহত করে বলে জাকের স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান। স্থানীয় লোকজন আহতদেরকে উদ্ধার করে প্রথমে চিকিৎসার জন্য শিবগঞ্জ হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাদের অবস্থা গুরুতর হওয়াই বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। বাদী জাকের আলী জানান গোলাম রব্বানী শিপনের বৈধ কোন ব্যবসা না থাকার পরও কি করে আলিশান বাড়ী নির্মাণ করে। সে আরও জানায় তার বাবা ও মা এলাকার একজন কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী ছিল। বর্তমানে সে ও তার পরিবারের সদস্যরা এলাকার কুথ্যাত সুদারু নামে পরিচিত। এদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য ভুক্তভোগীর পরিবারে দুদক সহ আইন প্রয়োগ কারী সংস্থার সদস্যদের প্রতি জোর দাবী জানান।
এ ব্যাপারে জাকের আলী বাদী হয়ে (১) গোলাম রব্বানী শিপন(৩৫) পিতা মৃত সেকেন্দার আলী ( গাঁজা ব্যবসায়ী), (২) গোলে(৫০) স্বামী মৃত সেকেন্দার আলী, (৩) রিতা বেগম(৩০), স্বামী গোলাম রব্বানী শিপন (৪) জাহানারা বেগম, (৪৫), স্বামী আঃ বাসেদ, (৫) মহন(১৬) পিতা গোলাম রব্বানী শিপন, (৬) আয়শা (৩০), স্বামী আজম সর্ব সাং মহাস্থান নামাপাড়া, থানা শিবগঞ্জ, জেলা বগুড়া গনকে বিবাদী করে ৯/১০/২২ ইং তারিখে একটি অভিযোগ দায়ের করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Don`t copy text!
%d bloggers like this: