সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি::

 

পানির অপর নাম’জীবন’ অথচ সেই পানিই আজ তাদের জীবনের কাল হয়ে দাঁড়িয়েছে। টানা বর্ষণ আর পাহাড়ি ঢলে পানিবন্দী মৃতপ্রায় জীবনে সঙ্কটাপন্ন প্রহর গুণছে তারা। সুনামগঞ্জ জেলার বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার ৫টি ইউনিয়নসহ নতুন করে প্লাবিত হয়েছে আরো শত শত গ্রাম-এলাকা। ঘরবাড়ি, রাস্তাঘাট, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান-সবকিছুই এখন পানির নিচে।

 

পানি উন্নয়ন বোর্ড জানিয়েছে, সিলেটের সব নদ-নদীর পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বন্যাপ্লাবিত অঞ্চলগুলোর মধ্যে বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার সীমান্তবর্তী গ্ৰাম ও হাওর এলাকা অন্যতম। এ জনপদের প্রায় ২৫/৩০ হাজার মানুষ পানিবন্দী।রাস্তাঘাট,ঘরবাড়ি,দোকানপাট ও বাজারঘাট সহ পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় চরম খাদ্যাভাব ও বিশুদ্ধ পানির সঙ্কট দেখা দিয়েছে। এমন নাজুক পরিস্থিতিতে অসহায়দের পাশে দাঁড়িয়েছেন বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার প্রশাসন। ও বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান জনাব সফর উদ্দিন। বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ যুবলীগ মোঃ আনোয়ার হোসেন (খোকন) সহ আরো অনেকেই।

 

এরেই ধারাবাহিকতায় গ্ৰামসহ পানি ভেঙে মানুষের বাড়ি ও প্রত্যেক টা আশ্রয় কেন্দ্রে গিয়ে সরকারি অর্থায়ণের চাউল ও প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করছে। প্রতিদিনই শতাধিক পরিবারের মাঝে খাদ্য বিতরণ করছেন তিনি। তার এমন মানবিক সেবা নজর কেড়েছে সবার। সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ। খবর নিচ্ছেন পানিবন্দীদের। বিলিয়ে দিচ্ছেন খাবার” খাবারের আশায় চিৎকার করছে মানুষ-জনগণের দুর্ভোগ দেখে নিজেকে ধরে রাখতে পারেননি মানবিক বিশ্বম্ভরপুর Uno সার্দিউর রহিম জাদিদ।,খলিফা ওমরের চেতনা নিয়ে নেমে গেলেন পানিতে। ঘরে ঘরে পৌঁছে দিলেন খাবার। এমন জনপ্রীতি আর সেবা দেখে অনলাইনে সক্রিয়রা প্রশংসায় ভাসাচ্ছে তাকে। ফেসবুকে দেশের বিশিষ্টজনেরানও বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা প্রশাসন,সার্দিউর রহিম জাদিদের ‘ছবি পোস্ট করে নানা স্তুতি বাক্য লিখছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Don`t copy text!
%d bloggers like this: