বগুড়ার শিবগঞ্জে দুটি মন্দিরের ভিতর ঢুকে মূর্তি ভাংচুরের অভিযোগে সিহাব (৩০) নামে এক মাদকাসক্ত যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, উপজেলার দেউলী ইউনিয়নের রহবল হিন্দুপাড়ায় সনাতন ধর্মালম্বীদের পারিবারিক পৃথক দুটি হরি মন্দিরের হরিঠাকুরের মন্ডু , নিতাই, লক্ষ্মীর মন্ডু ও জয়ার হাত, মাথার মুকুট রোববার গভীর রাতে ভেঙ্গে ফেলা হয়।

খবর পেয়ে সোমবার দূপূরে বগুড়ার পুলিশ সুপার সুদীপ চক্রবর্তী বিপিএম বার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এসময় কান্তি কুমার সাহা ও শ্রী নিত্যরঞ্জন সরকার বলেন, এই এলাকার মুসলমানদের সঙ্গে আমাদের ভ্রাতিত্ব ভাব রয়েছে। তাদের সঙ্গে আমাদের কোন বিরোধ নেই। তবে কে বা কাহারা বিভ্রান্ত সৃষ্টি করার জন্য এ ধরনের জঘন্য ঘটনা ঘটিয়েছে।

পুলিশ সুপার সুদীপ চক্রবর্তী বিপিএম বার বলেন, মন্দিরের দরজা না থাকার কারণে এ ঘটনা ঘটেছে। তবে মন্দিরের নিরাপত্তার স্বার্থে মন্দিরের দরজা লাগানো বিশেষ প্রয়োজন।

এ সমস্যার কথা প্রয়োজনে জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা চেয়ারম্যান এর নিকট উত্থাপন করার পরামর্শ প্রদান করেন।

ঘটনাস্থল পরিদর্শনকালে পুলিশ সিহাব নামে এক মাদকাসক্ত যুবককে আটক করেছে। আটকৃত যুবক চাঁদপুর জেলার আমির হোসেন এর ছেলে।

এ ব্যাপারে শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি দীপক কুমার দাস বলেন, আটকৃত যুবক মন্দিরে ভাংচুরের ঘটনার বিষয়টি স্বীকার করেছে। এ ঘটনার সাথে আরো কেউ জড়িত আছে কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

——

নুরনবী রহমান স্টাফ রিপোর্টারঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Don`t copy text!