নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বগুড়া সদর উপজেলার লাহীরীপাড়া ইউনিয়ন যুবদলের আহ্বায়ক সুমন সরকার(৩৮)কে গ্রেফতার করেছে সদর থানা পুলিশ।

মামলা সূত্রে জানাগেছে ২০১৬ সালে দোবারিয়া গ্রামের সুজন সরকারের সাথে ইসলামী শরীয়ত মোতাবেক গাবতলী উপজেলার উনচুর্খী গ্রামের ছবি আক্তার ২৫ এর পারিবারিকভাবে বিবাহ সম্পন্ন হয়। বিয়ের কিছুদিন পর থেকেই ২লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে মাঝে মাঝেই মারধর সহ মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন করতো সুজন সরকার। ১১/৫/২১ সালে সুমন সরকারের মোদদে ছবি আক্তারকে পাশবিক নির্যাতন করে কাঠের বাটাম দ্বারা মাথায় আঘাত করে মাথা ফাটিয়ে দেন স্বামী সুজন সরকার। এ সময় সুমন সরকার (ইউনিয়ন যুবদলের আহ্বায়ক) ছবি আক্তারকে শারীরিক নির্যাতন করে। স্থানীয় লোকজন ছবি আক্তারকে গাবতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করালে চিকিৎসা নিয়ে গাবতলী মডেল থানায় মামলা করতে গেলে থানা পুলিশ মামলা নিতে অস্বীকৃতি জানান। নিরুপায় হয়ে ছবি আক্তার জেলা বগুড়ার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এ মামলা দায়ের করেন যাহার নং ২০৪পি/২১ সদর। এবং মামলার উল্লেখ করেন পূর্বেও এমন ঘটনা ঘটেছে তবে স্বামীর সংসারে ভালো থাকার জন্য আপোষনামা করেন।

মাননীয় বিজ্ঞ বিচারক অভিযোগের সত্যতা পেয়ে গেফতারী পরোয়ানা জারি করেন। গ্রেফতারী পরোয়ানা মূলে সদর থানায় সহকারী উপ-পরিদর্শক এ এস আই আতিক ১০ই অক্টোবর রাত আনুমানিক ৮টায় আবু তাহের এর ছেলে লাহীরীপাড়া ইউনিয়ন যুবদলের আহ্বায়ক সুমন সরকারে গ্রেফতার করে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরন করেন।

উল্লেখ্যঃ গ্রেফতারকৃত সুমন সরকারের বিরুদ্ধে ১। সদর থানার মামলা নং ২৯/১২ এসিড অপরাধ দমন আইন ২০০২ ধারা ৪/৫ ২। সদর থানার মামলা নং ৩/১৫ ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইন ধারা ১৬(২)২৫-ডি দন্ডবিধি ১৮৬০ ১৪৩/৩৪১/৩২৬/৩০৭/৪২৭
৩। গাবতলী মডেল থানার মামলা নং ২৮/১৫ দন্ডবিধি ১৮৬০ ধারা ১৪৩/৩৮৫/৪৪৮/৩২৩/৩৮০/৫০৬
৪। সদর থানার মামলা নং ৯৬/২২ ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইন ধারা ১৫(৩)/২৫-ডি
৫। সদর থানার মামলা নং ১৩/২২ দন্ডবিধি ১৮৬০ ধারা ১৪৩/৪৪৭/৩৮৬/৪২৫/৩৯৭/৫০৬(২)/১১৪/৩৪
৬। সদর থানার মামলা নং ১৪/২২ দন্ডবিধি ১৮৬০ ধারা ১৪৭/৪৪৭/৩২৩/৩২৬/৩০৭/৩৫৪/৪২৭/৫০৬/১১৪/৩৪/৩৮০ সহ একাধিক মামলা চলমান রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Don`t copy text!
%d bloggers like this: