সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলা ঝুরঝুরি  সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত  প্রধান শিক্ষিকা সাবিনা ইয়াসমিন স্কুলের পুরাতন লোহা, টিন ও আসবাবপত্র বিক্রি করার অভিযোগ উঠেছে।

স্থানীয় বাসিন্দা আব্দুল করিম জানান সোমবার (২৭ জুন)  বিকেলে স্কুলের  ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা সাবিনা ইয়াসমিন পুরাতন লোহা টিন  আসবাবপত্রগুলি ঝুরঝুরি বাজারে এক ভাঙারি ব্যবসায়ীর নিকট ৭ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেন।

ঝুরঝুরি বাজারে ভাঙ্গারী ব্যবসায়ী মো শহিদুল ইসলাম  বিষয়টির সত্যতা স্বীকার করে বলেন স্কুলের আসবাবপত্র ও  নগদ ৭ হাজার টাকা দিয়ে ক্রয় করেছি আমি।

বিদ্যালয়ের সভাপতি মোঃ শুকুর আলী  বিএসসি  জানান, এসব আসবাবপত্র বিক্রির বিষয়ে আমি কিছু জানিনা। তাছাড়া প্রধান শিক্ষিকা বিদ্যালয়ের কোন বিষয়ে আমাকে অবগত করেন না। বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের অনেক অভিযোগ রয়েছে এই প্রধান শিক্ষিকার বিরুদ্ধে।

এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষকা সাবিনা ইয়াসমিন বলেন, পুরাতন লোহা, টিন গুলি আমি কোনো কিছু বিক্রি করিনি। ভাঙ্গারী ব্যবসায়ী ও স্থানীয় কিছু লোক মিলে অপপ্রচার চালাচ্ছে। আসবাবপত্র গুলি বিক্রির বিষয়টি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

এ প্রসঙ্গে উপজেলা প্রাথমিক সহকারী শিক্ষা  অফিসার মোঃ মাহমুদ হোসেন বলেন, আমি জানতে পারি, যে ঝুরঝুরি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা সাবিনা পারভীন বিদ্যালয়ের কিছু লোহা টিন ও আসবাবপত্র এক ভাঙ্গারী ব্যবসায়ীর কাছে বিক্রি করে দিয়েছে।

তদন্তে মালামাল বিক্রিতে অনিয়ম পেলে তার বিরুদ্ধে  ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.