খাদ্য মন্ত্রনালয়ের ওএমএস এবং টেডিং কর্পোরেশন বাংলাদেশ (টিসিবি) এর সমন্বয়ের মাধ্যমে, সারা বাংলাদেশের নেয় সিরাজগঞ্জের তাড়াশে  প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে ন্যায্যমূল্যে ওএমএসের খাদ্যপণ্য বিক্রি শুরু হয়েছে।

 

বৃহস্পতিবার (১‌ সে‌প্টেম্বর) সকাল ১০ ঘটিকায়  তাড়াশ পৌর সদরের বাসস্ট্যান্ড এলাকায় উপ‌জেলা নির্বাহী অ‌ফিসার জনাব মোঃ মেজবাউল করিম ওএমএসের চাল বিক্রি কার্যক্রম উ‌দ্বোধন ক‌রেন।

 

 এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মনিরুজ্জামান মনি, তাড়াশ সদর ইউনিয়ন পরিষদের সফল চেয়ারম্যান মোঃ বাবুল শেখ, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা মোঃ ইয়াসিন আলী, ৪ নং ওয়াডের কাউন্সিলর মোঃ জালাল উদ্দীন।

 

উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা মোঃ ইয়াসিন আলী, জানান, তাড়াশ পৌর এলাকায় তিনটি ডিলার আছে।  ওএমএসের চাল প্রতিদিন সকাল ৯ টা হতে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত ওএমএসের চাল বিক্রি করা হবে। মাসে ২২ দিন ন্যায্যমুল্যে এ বিক্রি কার্যক্রম চলবে। সাপ্তাহিক ছুটির দিন ব্যতিত চাল পাওয়া যাবে, তাড়াশ পৌর এলাকায় মৎস্য বাজারে ডিলার গাজী মনোরঞ্জন কর্মকার,৷তাড়াশ বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ডিলার মোঃ তোরাব আলী, তাড়াশ মহুরী সেরেস্তায় ডিলার মোঃ রুবেল হোসেন, এই তিনটি স্থানে ৩০ টাকা কেজি দরে জনপ্রতি ৫ কে‌জি করে চাল বি‌ক্রি করা হবে।

 

 উপজেলা নির্বাহী অ‌ফিসার জনাব মোঃ মেজবাউল করিম, বলেন ওএমএসের চাল বিক্রি শুধু প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে ন্যায্যমূল্যে বিক্রি করা যাবে, কোন পোকার ব্যবসায়িক দের কাছে  বেসি দামে বিক্রি করা যাবে না, এই চাল অন্য কোথাও পাওয়া গেলে, সঠিক তদন্তের মাধ্যমে সেই ডিলার কে আইনের আওতায় এনে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Don`t copy text!
%d bloggers like this: