সিরাজগঞ্জের তাড়াশে ডাক্তারকে স্যার না বলায় এক সাংবাদিককে লাঞ্ছিত করা হয়েছে।ঘটনাটি ঘটেছে তাড়াশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে । লাঞ্ছিত সাংবাদিক জানান, গত বুধবার তাড়াশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বিভিন্ন অনিয়ম ও দূর্নীতির তথ্য সংগ্রহের জন্য হাসপাতালে গেলে উপজেলা স্বাস্থ্য ও প. প. কর্মকর্তা ডা: মো: মনোয়ার হোসেন তাড়াশ রিপোর্টার্স ইউনিটির সাহিত্য ও প্রচার সম্পাদক দৈনিক আমার সংবাদ পত্রিকার চলনবিল প্রতিনিধি কে আলোচনার একপর্যায়ে বলেন আমাকে স্যার বলে সম্বোধন করতে হবে, ইউ এন ও কে স্যার বলেন আমাকে বলেন না কেন? এখন আমাকে স্যার বলতে হবে।
এভাবে তিনি তার অন্য আরেকজন ডা: এ এস এম রাকিবুল ইসলাম (সহকারী সার্জন) নিয়ে দুজন মিলে ঐ সাংবাদিককে স্যার বলতে বাধ্য করান এবং বিভিন্ন ভাবে ভয়ভীতি দেখনোসহ অসৌজন্যমূলক আচরন করেন। এ ব্যাপারে বিষয়টি নিয়ে তাড়াশে কর্তব্যরত সাংবাদিকদের মাঝে ব্যাপক  ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।
 উল্লেখ্য তার বিরদ্ধে বেলা ১২ টার পরে টিকিট কাউন্টার বন্ধ করে রোগীদের সেবা না দেওয়া, হাসপাতালের পাশে অফিস চলাকালীন সময়ে ক্লিনিকে বসে ডাক্তারদের রোগী দেখা, ছুটি না নিয়ে ডাক্তারদের কর্মস্থলে না থাকা, হাসপাতালের অফিস কোয়ার্টার গুলোতে রিপেয়ারিং এর নামে ব্যাপক অনিয়ম, হাসপাতালের কোয়ার্টার ও ডরমেটরিতে অবস্থান করেও ভাড়া কর্তন না করা সহ ব্যপক অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে।
এ ব্যপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও প. প. কর্মকর্তা ডা: মো: মনোয়ার হোসেনকে তার মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোন মন্তব্য করতে রাজী হন নি।
সিরাজগঞ্জ জেলা সিভিল সার্জন ডা: রামপদ রায় এর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিষয়টি শোনার পরে কোন মন্তব্য করেন নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.