সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:
সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের বিন্নাকুলি গ্রামে পূর্ব শত্রুতার জেরে এক ব্যবসায়ীর ম্যানেজারসহ তিন জন সন্ত্রাসী হামলা ও ছিনতাইয়ের শিকার হয়েছেন। আহতরা হলেন বিন্নাকুলি গ্রামের বাসিন্দা বাল,ু পাথর, ব্যবসায়ী গোলাম রাব্বানীর ম্যানাজার তৌহিদ ইসলাম(৪০),তার সহোদর শহিদ মিয়া(৫০),তাদের পিতার নাম মো: ফুল মিয়া এবং হিরো মিয়ার ছেলে মো: আবুল কাশেম (৪২)। আহতদের তিন জনকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।
প্রত্যক্ষদোষী ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায় ঘটনাটি ঘটে ৬ই অক্টোবর বৃহস্প্রতিবার রাত ৮টায় বাদাঘাট ইউনিয়নের বিন্নাকুলি গ্রামে মো: ফুল মিয়ার বাড়িতে। জানা যায় পূর্ব শত্রুতার জেরে ঘটনার দিন রাতে একই গ্রামের হামলাকারী আলী আকবর, জুয়েল, রুবেল, কবির হোসেন, মনির হোসেন, জাকির হোসেন, মাহবুব এবং আরও অজ্ঞাত নামা ৭/৮ জন মিলে বিন্নকুলি গ্রামের বাসিন্দা মো: ফুল মিয়ার বাড়িতে এসে গালিগালাজ শুরু করে । এসময় তার ছেলে তৌহিদুল ব্যবসায়ী টাকা নিয়ে বাড়ির সামনে এসে দেখে একদল চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা তাদের বাড়ির সামনে এসে তার বাবা ফুল মিয়াকে মারার জন্য গালিগালজ শুরু করে । এসময় তৌহিদুল কারন জানতে চাইলে প্রতিপক্ষরা দেশীয় অস্ত্র দাড়ালো রামদা, দা, লোহার রড, লাঠি সোঠা নিয়ে ফুল মিয়ার বাড়িতে হামলা চালায় । হামলা দাড়ালো অস্ত্রের আঘাতে তৌহিদুল, শহিদ মিয়া ও কাশেম মিয়া আহত হন। এসময় হামলাকারীরা তৌহিদুলের সাথে থাকা ব্যবসার নগদ ৩লাখ ৪০ হাজার টাকা ও একটি এন্ডোয়েট মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে যায় বলে জানান আহতরা। পরে তাদের সু-চিৎকারে আশপাশের লোকজনের সহযোগিতায় আহতদের সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে আনা হলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাদের অবস্থা আশংঙ্কা জনক হওয়ায় আহতদের তিন জনকেই সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। এঘটনায় হামলাকরীদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান আহত পরিবারের লোকজন। এই নিয়ে তৃতীয় বারের মতো তাদের উপর প্রাণ নাশের হামলা চালানো হয়েছে বলে ও জানান আহতদের পরিবার। এব্যাপারে তাহিরপুর থানান অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ ইফতেখার হোসেন জানান অভিযোগ পেলে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। ##

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Don`t copy text!
%d bloggers like this: