চট্রগ্রামে যানজটে আটকা পড়ে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ মোটরসাইকেলে চড়ে সমাবেশে আসলেন।
______________________________________________
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে (শুক্রবার) ৩ জুন চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন ও সমাবেশের আয়োজন করে চট্রগ্রাম উত্তর ও দক্ষিণ জেলা মহিলা আওয়ামীলীগ। সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন  তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এমপি।

সমাবেশস্থলে আসার পথে যানযটে আটকা পড়ে নিজের প্রটোকল ও  গাড়ি ছেড়ে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এমপি মোটরসাইকেলযোগে চট্টগ্রামে উত্তর ও দক্ষিণ জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সমাবেশে যোগ দিয়েছেন। বন্দর থানার ওসি তদন্তের মোটরসাইকেলের পিছনে বসে ১০ কিলোমিটারের বেশি পথ অতিক্রম করে এ সমাবেশে যোগ দেন তিনি।

মন্ত্রী বিকেল সোয়া ৫ টায় বিমানযোগে চট্টগ্রাম পৌঁছান। এরপর মন্ত্রীর জন্য নির্ধারিত গাড়িতে চড়ে জামালখানস্থ প্রেস ক্লাবের উদ্দেশে রওয়ানা হন। কিন্তু বিমানবন্দর থেকে ইপিজেড এলাকায় পৌঁছে বন্দরকেন্দ্রিক যানজটে আটকা পড়ে মন্ত্রীকে বহনকারী ও পুলিশ প্রটোকলের গাড়ি। এদিকে মাগরিবের সময় ঘনিয়ে আসায় সমাবেশে যোগ দেয়ার তাগিদে মন্ত্রী নিজের গাড়ি থেকে নেমে পড়েন। এ সময় তিনি বন্দর থানার ওসি তদন্তের মোটরসাইকেলে চড়ে সমাবেশের উদ্দেশে রওয়ানা করেন। তাঁর নিজের গাড়ি ও পুলিশ প্রটোকলের গাড়ি পড়ে থাকে যানজটের মধ্যে।

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রীকে বহনকারী মোটরসাইকেলটি সমাবেশস্থলে পৌঁছালে সমাবেশে উপস্থিত বিপুল সংখ্যক নারী ও দলীয় নেতৃবৃন্দ উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়েন। এ সময় তাঁকে ঘিরে নেতৃবৃন্দের মুহূর্মুহূ স্লোগানে সমাবেশে নতুন করে উদ্দীপনা ও প্রাণচাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়। উত্তর ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ ও মহিলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ মন্ত্রীকে স্বাগত জানান। এরপরই তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।

মন্ত্রী নিজের ও প্রটোকলের গাড়িতে এলে কোনোভাবেই এ সমাবেশে যোগ দিতে পারতেন না। দীর্ঘ পথ মোটসাইকেলে পাড়ি দিয়ে সমাবেশে যোগ দেয়ায় দলীয় নেতাকর্মী ও উপস্থিত সুধীজন মন্ত্রীর আন্তরিকতায় মুগ্ধ হন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.