মোঃ মেজবাউল ভুরুঙ্গামারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধিঃ
কুড়িগ্রাম ভূরুঙ্গামারীতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্ত্রীরর বড় ভাইয়ের হাতে স্বামী খুন হওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

কুড়িগ্রাম জেলার ভুরুঙ্গামারী সদর ইউনিয়নের ইশ্বরবরুয়া একাববর মোড় এলাকার আঃ জব্বার (৫০) কে তার স্ত্রীরর বড় ভাই মোঃ মমতাজ উদ্দিনের মারপিটের কারনে শুক্রবার ২২ জুলাই  সকাল ১১:৩০ মিনিটে ভুরুঙ্গামারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে।নিহত আঃ জব্বার (৫০), উপজেলার একই ইউনিয়নের মৃত মোজাফফর হোসেনের পুত্র

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গতকাল (বৃহস্পতিবার ) রাতে একাব্বর মোড় এলাকার দরদী চা স্ট্রলের সামনে নিহত আঃ জব্বারের স্ত্রীরর বড় ভাই মমতাজের সাথে বাকদ্বন্দ হলে এক পর্যায়ে তাকে মারপিট করে জখম করে। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় আঃ জব্বারকে তার পরিবারের লোকজন উদ্বাধার করে  বাড়িতে নিয়ে মাথায় পানি দেন শারিরিক অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় তার স্ত্রী হাসিনা বেগম তাকে ভুরুঙ্গামারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেয়ে ভর্তি করে। চিকিৎসারত অবস্থায় আজ সকাল ১১:৩০ মিনিটে সে মৃত্যুর বরন করে।

আরও জানা যায়, নিহত আঃ জব্বার প্রায় ১৭ বছর যাবৎ সে শশুর বড়িতে জায়গা নিয়ে বসবাস করছে মৃত্যুর সময় এক কন্যা, এক পুত্র স্ত্রী রেখে গেছেন।

এ বিষয়ে নিহতের মেয়ে সাথি জানায় আমার বাবাকে আমার মামা মমতাজ গতোরাতে অনেক মারপিট করেছে সেই কারনেই আমার বাবা মারা গেছে।

নিহতের ছোট ভাই সুবহান আলী বলেন, আজ সকালে মোবাইলে আমি জানতে পারি আমার ভাইকে মমতাজ অনেক পারপিট করেছে সে হাসপাতালে ভর্তি আছে। আমি তাকে দেখার জন্যে রওনা দিলে পথিমধ‍্যে শুনতে পাই সে মারাগেছে। আমি আমার ভাইয়ের খুনির সঠিক বিচার দাবি করছি।

ভুরুঙ্গামারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্তব্যরত চিকিৎসক আর এম ও রাজু বলেন, গতরাতে ১:৩০ আঃ জব্বার কে অচেতন অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসে। আমরা প্রাথমিক চিকিৎসা করার পর তার জ্ঞান না ফিরলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্যে অন‍্য হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দেই তারা সেখানে নিয়ে যায়নি। আজ সকালে ১১:৩০ মিনিটে ডাক্তার সাহাদুজ্জামান তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ভুরুঙ্গামারী থানার ওসি আলমগীর হোসেন বলেন এ বিষয়ে এখনো কোনো থানায় অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে ব‍্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.