শেফাইল উদ্দিন একজন সত্যিকার আওয়ামীলীগের বিজয় হোক বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কক্সবাজারের ঈদগাঁও উপজেলা শাখায় এমনটাই আশা করছেন দলমত নির্বিশেষে এলাকাবাসী। যা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। তিনি হলেন ঈদগাঁও উপজেলার বীর মুক্তিযোদ্ধা আলম মাষ্টারের ছেলে সাবেক জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাবেক সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এবং সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান গন মানুষের নেতা আলমগীর চৌধুরী হিরোর ছোট ভাই ঈদগাঁও উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক বহুল প্রতীক্ষিত আগামী কাল ১২ সেপ্টেম্বরের সম্মেলন ও কাউন্সিলের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী হুমায়ূন কবির চৌধুরী হিমু। হিমুর বিজয় মানে আওয়ামীলীগের বিজয় ।
দলমত নির্বিশেষে সবাই এই দাবি জানিয়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে। সবচেয়ে বেশি ভাই ভাইরাল হওয়া স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো

বৃহত্তর ঈদগাতে (ঈদগাঁও) আওয়ামীলীগ মানে ঈদগাহ উত্তর মাইজপাড়ার সবর্জন শ্রদ্ধেয় জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মু্ক্তিযোদ্ধা মরহুম আলম মাস্টরের পরিবার। আমার জানামতে তাঁদের পরিবারের সকলের রক্তে মিশে আছে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও দেশপ্রেম।
রাজনীতির সুদিন- দুর্দিনে তারা কোন দল বদল করেন নি।
তাঁদের পরিবারের সকলে বৃহত্তর ঈদগাহ’র মানুষের কল্যাণে কাজ করে চলেছেন।
এ পরিবারটি প্রিয় সংগঠন আওয়ামীলীগ কিংবা কোন ব্যক্তির সু সময়ের বন্ধু নয়, বরং দুঃসময়ের সাথী।

প্রিয় হুমু ভাই একজন নিরহংকার, নির্লোভ, সৎ, মেধাবী, উচ্চ শিক্ষিত, পরোপকারী, নিখাদ আওয়ামীলীগার।

রাজনীতিতে প্রতিযোগীতা থাকতেই পারে। তবে এ পরিবারের কোন সদস্য যদি প্রিয় সংগঠন আওয়ামীলীগ এর কোন পদে প্রার্থী হন, তাহলে তাদের প্রতিদন্দী হওয়া কেমন জানি বড্ড বেমানান।
কারণ আওয়ামীলীগের দুঃসময়ে মাঠে-ময়দানে, মিছিলে – মিটিং এ আমরা তাদেরকে দেখেছি।

আজকে প্রিয় আওয়ামীলীগ এর সু সময়ে হয়ত অনেকে অনেক দল থেকে এসেছে। দুর্ভাগ্যবশত যদি কোন দিন আওয়ামীলীগের দুর্দিন শুরু হয়, তখন অতিথি পাখিরা ঠিকই নিজের দলে নিজেরা ফিরে যাবেন। কিন্তু হুমু ভাইদের আওয়ামীলীগ ছাড়া অন্য দলে ফিরে যাওয়ার কোন সুযোগ নেই। কারণ এরা খাঁটি আওয়ামীলীগ। এরা কোন দল থেকে মধু খেতে আসন নি।
সবক্ষেত্রে আদর্শবান ও ত্যাগীদের মূল্যায়ন করা সকলের দায়িত্ব ও কর্তব্য।

আশা করছি, আগামী ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২ খ্রি. তারিখ প্রিয় ঈদগাঁও বাসী তথা ঈদগাঁও উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মানিত কাউন্সিলরবৃন্দ তাঁদের পরিবারকে মূল্যায়নের মাধ্যমে প্রিয় হুমু ভাইকে জয়যুক্ত করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই মাত্র পাওয়া খবর

চাকমারকুল মিয়াজীপাড়ায় মিনিবার ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা সম্পন্ন। মোহাম্মদ নোমান রামু কক্সবাজার প্রতিনিধি। শুক্রবার (২৭ জানুয়ারী ,২০২৩ইং) রাত ৮.০০ টায় রামু উপজেলার চাকমারকুল ইউনিয়নের মিয়াজীপাড়ায় ফাইনাল খেলা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান ব্যাপক দর্শক সমাগমের মধ্য দিয়ে বহুল প্রশংসিত এবং প্রত্যাশিত সী-গ্রীন স্পোর্টিং ক্লাব কর্তৃক আয়োজিত মিনি বার ফুটবল টুর্নামেন্ট ২০২২-২৩ এর ফাইনালখেলা সম্পন্ন হয়েছে। উক্ত ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন কলঘর বাজার সিনিয়র ফুটবল দল বনাম মালুম ঘাট ফুটবল দল। মাঠে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ম্যাচে মালুম ঘাট ফুটবল দলকে ১-০ গোলে পরাজিত করে কলঘর বাজার সিনিয়র ফুটবল দল চ্যাম্পিয়ন হয়।উক্ত খেলায় সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন কলঘর বাজার সিনিয়র ফুটবল দলের খেলোয়াড় আয়াত উল্লাহ। খেলা শেষে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের মাঝে ট্রফি সহ নগদ ৫০,০০০ টাকা,পরাজিতদের হাতে ট্রফিসহ নগদ ২০০০০ টাকা পুরস্কার তুলে দেন চাকমারকুল ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান জনাব মুফিদুল আলম (মুফিদ)। সী-গ্রীন স্পোর্টিং ক্লাবের উপদেষ্টা জনাব সরওয়ার আলমের সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চাকমারকুল ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের মেম্বার জনাব সাহাব উদ্দিন, ১নং ওয়ার্ডের মেম্বার জনাব বেলাল উদ্দীন শাহীন, ৩নং ওয়ার্ডের মেম্বার জনাব নুরুল ইসলাম নুরু ১,২,৩ ওয়ার্ডের মহিলা মেম্বার জনান্বা আল মর্জিনা, ৪,৫,৬নং ওয়ার্ডের মহিলা মেম্বার গুলজার বেগম ৭,৮,৯১নং ওয়ার্ডের মহিলা মেম্বার মরিয়ম বেগম,সমাজ সেবক আমির হোসেন সিকদার, যুব নেতা সালাহ উদ্দীন জনাব সাইফুল ইসলামসহ প্রমুখ। প্রধান অতিথির বক্তব্যে মুফিদুল আলম বলেন, যুব সমাজকে খেলাধূলার প্রতি আগ্রহী করে তাদেরকে রক্ষা করতে হবে। যুবসমাজকে রক্ষা করতে পারে একমাত্র ক্রীড়া জগত। তাই বেশি বেশি করে খেলাধূলার আয়োজন করতে হবে। উক্ত টুর্ণামেন্টের পরিচালনায় ছিলেন জানে আলম,ন্হুমায়ুন বিন কাসেম হিরু,জামাল হোসেন,কায়সার,জামশেদ,আশেক,হামিদুর রহমান,মনছুর,সোহেল,মনজুর,জাহেদুল ইসলাম,নুরুসহ প্রমুখ

Don`t copy text!
%d bloggers like this: