শেফাইল উদ্দিন

কক্সবাজারের ঈদগাঁও বাজারে নেই ড্রেইন ,বর্জ্য ও পয় নিস্কাশনের ব্যবস্থা।এতে অল্প বৃষ্টিতে সড়কে স্থায়ী জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হচ্ছে। অন্যদিকে বর্জ্য ও পয় নিস্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় চরম ভাবে পরিবেশ দুষিত হচ্ছে ।
এই ঈদগাও বাজার থেকে প্রতি বছর সরকার কোটি টাকা রাজস্ব আদায় করলে ও উন্নয়ন এবং সংস্কারের কোনো কাজ হচ্ছে না বলে জানান সচেতন মহল। পরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থার মাধ্যমে এ বানিজ্য নগরীর উন্নয়ন ত্বরান্বিত ও পরিবেশ রক্ষার দাবি জানিয়েছেন বাজার ব্যবসায়ী সহ সর্বস্থরের লোকজন।
জানা যায়,ঈদগাঁও বাজারে ছোট বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, দোকান ,শপিং মল, হোটেল রেস্টুরেন্ট, প্রাইভেট ক্লিনিক, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সরকারী বেসরকারী বিভিন্ন অফিস,ব্যাংক বীমা সহ প্রায় ১৫ হাজারের ও অধিক প্রতিষ্ঠান রয়েছে। ঈদগাঁও উপজেলা ছাড়া ও সদরের ভারুয়াখালী , চৌফলদণ্ডী পার্শ্ববর্তী রামু উপজেলার ঈদগড ও পার্বত্য এলাকার বাইশারীসহ বিভিন্ন এলাকার লোকজন ব্যবসা বাণিজ্য ও বিভিন্ন প্রয়োজনে প্রতিদিন যাতায়াত করে এই ঈদগাঁও বাজারে । কিন্তু এই বাজারে পরিকল্পত কোন ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় একটু বৃষ্টি হলেই বাজারের ডিসি সড়কসহ বিভিন্ন অলিগলিতে পানি জমে স্থায়ী জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হচ্ছে । অন্য দিকে বর্জ্য ও পয় নিস্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় সড়কের উপরে ও আশে পাশে সমস্থ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ময়লা আবর্জনা ফেলা হচ্ছে এবং টয়লেটের লাইন গুলো ঈদগাঁও নদী সহ বাজারের অলিগল, হোটেলের পিছনে ও বিভিন্ন খোলা জায়গায় ছেড়ে দেয়া হচ্ছে । এতে বাজার ব্যবসায়ীরা অতিষ্ঠ হয়ে উঠছে এবং শিক্ষার্থীসহ বাজারগামী লোকজন চরম চরম দুর্ভোগে পোহাচ্ছে । অন্যদিকে পয় ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনা না থাকায় স্ব্যাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছে ব্যবসায়ী ও পার্শ্ববর্তী এলাকার লোকজন। এ ব্যাপারে ঈদগাঁও বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী নিউ মার্কেট কমপ্লেক্সের আইকন কম্পিউটার সেন্টারের সত্ত্বাধিকারী ও ফটোকপি ও কম্পিউটার মালিক সমিতির সভাপতি আনোয়ার আজাদের সাথে কথা হলে তিনি জানান, জলাবদ্ধতা নিরসনে পরিকল্পিত ড্রেইন নির্মাণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেন এবং বলেন এ বৃহত্তর বানিজ্য নগরীর পরিবেশ রক্ষায় সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির ঈদগাও উপজেলার সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক শিক্ষক আমান উল্লাহ আমান ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন এ বাজার থেকে কোটি টাকা রাজস্ব আদায় হলে ও পরিকল্পিত কোন উন্নয়ন হচ্ছে না। পরিকল্পিত ড্রেইন নির্মাণের দাবি এবং পরিবেশ রক্ষায় কর্তৃপক্ষের জরুরী দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।
সচেতন মহল পরিকল্পিত ড্রেইন, বর্জ্য ও পয় নিস্কাশনের ব্যবস্থা করে উন্নয়ন ও পরিবেশ রক্ষায় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Don`t copy text!
%d bloggers like this: