সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে ভাঙ্গাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান জহুরুল ইসলাম ভূঁইয়া ও প্যানেল চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের তালুকদারের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় গতকাল সোমবার দুপুরে বেলকুচি পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি আকতার হামিদসহ ৭ জনকে আসামি করে মামলা করেছেন চেয়ারম্যান জহুরুল ইসলাম ভূঁইয়া।

এর আগে গত রোববার বিকেলে বেলকুচি পৌর এলাকার জীধুরি এলাকায় এই হামলার ঘটনা ঘটে। আহত প্যানেল চেয়ারম্যান আব্দুল কাদেরকে সিরাজগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

মামলার বাদী চেয়ারম্যান জহুরুল ইসলাম ভূঁইয়া বলেন, ‘রোববার বিকেলে মোটরসাইকেলে করে প্যানেল মেয়রকে সঙ্গে নিয়ে যাচ্ছিলাম। আমরা ঘটনাস্থলে পৌঁছালে সেখানে ওত পেতে থাকা ছাত্রলীগের সভাপতি ও তাঁর সহযোগীরা আমার মোটরসাইকেলের গতিরোধ করেই লাঠিসোঁটা নিয়ে আমাদের ওপর হামলা করে। একপর্যায়ে আমার কাছে থাকা গুচ্ছগ্রাম প্রকল্পের ১ লাখ ৭৬ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। পরে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে আমাকে উদ্ধার করে পাশের একটি দোকানে নিয়ে গেলেও প্যানেল চেয়ারম্যান আব্দুল কাদেরকে এলোপাতাড়িভাবে আঘাত করে। তাঁকে গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে এনায়েতপুর খাজা ইউনুস আলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।’ 

এদিকে এসব অভিযোগ অস্বীকার করে পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি আকতার হামিদ বলেন, ‘আমি এই হামলার সঙ্গে জড়িত না। বরং ইউপি চেয়ারম্যানকে আমি হামলার হাত থেকে রক্ষা করেছি।’

বেলকুচি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম মোস্তফা বলেন, ‘চেয়ারম্যানের ওপর হামলার বিষয়টি জানতে পেরে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছিলাম। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.