বিশেষ প্রতিনিধি :

গত১৬ (সেপ্টেম্বর) শনিবার সুনামগঞ্জ পৌরসভার গোলাম রব্বানী সড়কে আবাসিক হোটেল সাকিব থেকে দুই সন্তানের জননী এবং সন্তানদের চাচা কে আটক করে সদর থানা পুলিশ।

৯৯৯ জরুরী নাম্বারে কে বা কারা কল করে আতঙ্কে পালায় হোটেল কতৃপক্ষকে।তরুণ তরুণী’ শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছেন শান্তিগঞ্জ উপজেলার শিমুলবাক ইউপি চেয়ারম্যান শাহিনুর রহমান শাহিন তিনি বলেন- প্রকাশিত সংবাদটি মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন, উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ও কাল্পনিক।

সংবাদে উল্লিখিত (তরুণ তরুণী বলা হয়, উনারা হলেন দেবর এবং ভাবি )উনারা হলেন আমার নির্বাচনী এলাকার লোক।চেয়ারম্যান আরো বলেন আমি শিমুলবাক ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধি হওয়ার সুবাদে কিছু মানুষ আমার সাইন ও শীল জরুরী ভিত্তিতে নেওয়ার জন্য বাসায় আসে। একটি স্বার্থান্বেষী মহলের প্ররোচনায় এ মিথ্যা সংবাদের অবতারণা করা হয়েছে শুধু আমাকে সামাজিকভাবে হেয়প্রতিপন্ন করার পাশাপাশি আমার ক্ষতি করার জন্য।

প্রিন্ট পত্রিকা ,স্থানীয়,এবং অনলাইন পোর্টালে উদ্দেশ্য প্রণীত ভাবে হেড লাইন করে নিউজ করা হয়।

সুনামগঞ্জ সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত), ওয়ালী আশরাফ খান বলেন,দুজন কে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নেওয়া হয়।পরে আমরা কোর্টে পাঠাই।উচ্চ আদালত (১৭ সেপ্টেম্বর) তাদেরকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Don`t copy text!